সনাতন ভাবনা ও সংস্কৃতিতে আপনাদের স্বাগতম। সনাতন ধর্মের বিশাল জ্ঞান ভান্ডারের কিছুটা আপনাদের কাছে তুলে ধরার চেষ্টা করছি মাত্র । আশাকরি ভগবানের কৃপায় আপনাদের ভালো লাগবে । আমাদের ফেসবুক পেজটিকে লাইক দিয়ে আমাদের সাথেই থাকুন। জয় শ্রীকৃষ্ণ ।।

গুরু

গুরু (বি) -- উপদেষ্টা, উপদেশক, শিক্ষক, দীক্ষক, দেশিক, দিশারী, শাস্ত্রীয় জীবনের উপদেষ্টা, সাধনপন্থা নির্দেশক, সম্মানে বা বয়সে জ্যেষ্ঠ, মাননীয় ব্যক্তি,(বিণ) -- ভারী, গুণসম্পন্ন, দুর্বহ, দায়িত্বপূর্ণ, কঠিন, মহান, দুরূহ, শ্রদ্ধেয়, মাননীয়, অতিশয়, অধিক, জ্ঞান, বুদ্ধি, প্রজ্ঞা, knowledge, master, teacher ---.যে মহান মনীষী মানুষকে নৈতিক শিক্ষাদীক্ষা প্রদান করেন তাকে গুরু বলা হয় আবার চিত্তপটের সাথে ইন্দ্রিয়গ্রাহ্য তথ্যাদিকে জ্ঞান বা রূপকার্থে গুরু বলা হয়।
-
আপনদেশের মধুরবাণী
গুরু আমায় শোনাও না
দেশবাসী কয় উল্টাকথা
সোজা করে শোনায় না
... গুরু উপায় কী আমার
কেমনে হব তিরবেণী পার.......
....ত্রিতাপ জ্বালায় পরাণ পুড়ে
গুরু উপায় বল না
....প্রেমজ্বালায় অঙ্গ জ্বলে
মদনজ্বালা সহে না......
...গুরু বলো উপায় কী আমার
কেমনে হব তিরবেণী পার......
.....শেষের সে'দিন তুমি বিনে
........আর তো কেউ রবে না .......
-
গুরু চার প্রকার ---
-
যথা --
১. মানুষগুরু -- মানুষ আকারধারী যে মহান মনীষী সাধারণ মানুষকে জ্ঞান শিক্ষা প্রদান করেন তাকে মানুষগুরু বলে। যেমন বিদ্যালয়ের শিক্ষক আবার গুরুপদ প্রাপ্ত ব্যক্তির জ্ঞানকেও গুরু বলে।
-
২.জগৎগুরু -- সারাবিশ্বে বিরাজিত বাতাসকে জগৎগুরু বলে। আবার নাসিকার শ্বাসকেও জগৎগুরু বলে। যেমন -- 'রণে, বনে, পাহাড়ে ও জঙ্গলে যেখানে আমাকে স্মরণ করবে সেখানেই আমাকে পাবে।' তাই - মানুষগুরু জগতের সর্বত্রই বিরাজ করতে পারে না কিন্তু জগৎগুরু জগতের সর্বত্রই বিরাজ করতে পারেন।
-
৩. কামগুরু ----- শাস্ত্রীয় মতে কামের প্রতীতি মদনকে কামগুরু বলে। মূলতঃ পুরুষ জীবের শিশ্নকে কামগগুরু বলে। “প্রেম প্রকৃতি স্বরূপসতী, কামগুরু হয় নিজপতি, ও মন অনুরাগী না হলে, ভজন সাধন হয় না”। কাম ব্যতীত যেমন জীবের প্রজন্ম টিকিয়ে রাখা যায় না তেমন কোন প্রজাতির জীব সাংসারিক, সামাজিক, দলবদ্ধ বা সঙ্ঘবদ্ধ হতেও পারে না। জীবের প্রজাতি টিকিয়ে রাখার জন্য কামশাস্ত্রে কামের গুরুত্ব যেমন অপরিসীম তেমন কামযজ্ঞ পরিচালনার জন্য শিশ্নের গুরুত্ব আরো অপরিসীম। কামযজ্ঞ পরিচালনা করার গুরুত্বের প্রতি লক্ষ্য করেই শিশ্নকে কামদেবতা বা কামপ্রতীতি বা কামগুরু বলা হয়।
-
৪. পরমগুরু ------ জীবের লালনপালনকর্তা পরমেশ্বরকেই পরমগুরু বলে। “পরমগুরু বড়ই রঙ্গিলা আমার মনভোলা, কত নামে ধরাধামে করে আকারে লীলাখেলা” বা “ত্রিবেণীর ত্রিধারে, মীনরূপে গুরু বিরাজ করে, কেমন করে ধরবি তারে, বলরে অবুঝ মন”। পরমেশ্বর হলেন তরলমানুষ --- যিনি এখনো মূর্ত আকার ধারণ করেননি। মাতৃজঠরে ভ্রূণ লালনপালনের দায়িত্ব পালনকারী সুমিষ্ট, সুপেয় ও শ্বেতবর্ণের জল, মস্তিস্কে অবস্থিত 'চন্দ্রসুধা'।
-
গুরু যার থাকে সদয়
শমন বলে কিসের ভয়
গুরু চেনা সহজ নয়রে ....গুরু চেনা সহজ নয়
জগৎগুরু চিনতে গেলে ...মানুষ গুরু ভজতে হয় .......... জয় গুরু

courtesy by : Prithwish Ghosh
Share this article :
 
Support : Creating Website | Johny Template | Mas Template
Copyright © 2011. সনাতন ভাবনা ও সংস্কৃতি - All Rights Reserved
Template Created by Creating Website Published by Mas Template
Proudly powered by Blogger